Is Religion Responsible for Human Deeds on Earth?

Questions + Answers: ArchiveCategory: Family-SocietyIs Religion Responsible for Human Deeds on Earth?
Mozammel Khan Staff asked 1 year ago

religion

Religion is an organized collection of beliefs in Allah/God and a guide with views related to humanity. Religion is a matter of belief based on faith rather than scientific evidence. Moral and social values, along with the observance of devotional rituals, govern human actions and behavior.

ধর্ম হল আল্লাহ/ঈশ্বরে বিশ্বাসের সংগঠিত সংগ্রহ এবং মানবতার সাথে সম্পর্কিত মতামত সহ একটি নির্দেশিকা। ধর্ম বৈজ্ঞানিক প্রমাণের পরিবর্তে বিশ্বাসের ভিত্তিতে বিশ্বাসের বিষয়। ভক্তিমূলক আচার -অনুষ্ঠান পালনের সাথে নৈতিক ও সামাজিক মূল্যবোধ , যা মানবিক ক্রিয়াকাণ্ড এবং আচরণ পরিচালনা করে।

  • Religion is the abstract entity that facilitates and enhances our actions on earth. Humans are capable of using, exploiting, and implementing religion in positive or negative ways.
  • ধর্ম হল বিমূর্ত সত্তা যা পৃথিবীতে আমাদের কর্মকে সহজতরএবং উন্নত করে। মানুষ ধর্মকে ইতিবাচক বা নেতিবাচক উপায়ে ব্যবহার, কাজে লাগানো ও বাস্তবায়নে সক্ষম।
  • A recent social network poll shows that the majority say that religion has no responsibility for our actions, but that we are entirely responsible for our actions on earth.
  • সম্প্রতি একটি সোশ্যাল নেটওয়ার্ক জরিপ দেখায়- সংখ্যাগরিষ্ঠরা বলে যে- আমাদের কর্মের জন্য ধর্মের কোন দায়িত্ব নেই- বরং এই পৃথিবীতে আমাদের কাজের জন্য আমরা সম্পূর্ণরূপে দায়ী।

Human Nature to Blame:

দোষারোপ মানুষের স্বভাব:

Let’s consider an example-

When I buy a computer – it comes with detailed instructions – on how to use the computer. I have to consider preventive measures to avoid electric shock. If I do not follow the safety instructions – that cause an electric shock. So – who should I blame – the manufacturer, the computer, or myself? Although – it’s my fault, I blame the manufacturer, the computer. Blame is human nature – it needs to be avoided and controlled.

আসুন একটি উদাহরণ বিবেচনা করি-

আমি যখন কম্পিউটার কিনি- তার সাথে বিস্তারিত নির্দেশিকা আসে- কিভাবে কম্পিউটার ব্যবহার করতে হয় । বৈদ্যুতিক শক এড়ানোর জন্য আমাকে প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা বিবেচনা করতে হবে। আমি যদি নিরাপত্তা নির্দেশনা না মানি- যেটা বৈদ্যুতিক আঘাতের কারণ হয়। তাহলে- কাকে আমার দোষ দেওয়া উচিত- নির্মাতা, কম্পিউটার বা নিজেকে? যদিও- এটা আমার ভুল, আমি নির্মাতা, কম্পিউটারের দোষারোপ করি । দোষারোপ মানুষের স্বভাব- এটা এড়ানো এবং নিয়ন্ত্রণ করা প্রয়োজন।

  • Likewise- when my days are going smoothly, I want to give instant gratitude by saying- I did it and take all the credit. When my days are going hard – I start blaming Allah – why does He give me such a bad situation – what have I done wrong to Him. I always do a lot to please Allah.
  • একইভাবে- আমার যখন দিনগুলি নির্বিঘ্নে চলছে, আমি এই বলে তাত্ক্ষণিক কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই- আমি এটি করেছি এবং সমস্ত কৃতিত্ব নিতে চাই। আমার দিনগুলো যখন কষ্টে যাচ্ছে- আমি আল্লাহকে দোষারোপ করতে শুরু করি- তিনি কেন আমাকে এমন খারাপ অবস্থা দেন- আমি তার সাথে কি অন্যায় করেছি। আমিতো সবসময় আল্লাহকে খুশি করার জন্য অনেক কিছু করি।
  • We are fully responsible and accountable for our actions on earth.
  • আমরা এই পৃথিবীতে আমাদের কৃতকর্মের জন্য সম্পূর্ণরূপে দায়ী এবং দায়বদ্ধ।
  • Let’s begin to avoid blame and acknowledge that religion encourages us to assume authority, responsibility, and accountability for our actions in our lives. Which helps us to be humans instead of monsters.
  • আসুন দোষ এড়াতে শুরু করি এবং স্বীকার করি যে- ধর্ম আমাদের জীবনে কাজের জন্য কর্তৃত্ব, দায়িত্ব এবং দায়বদ্ধতা গ্রহণ করতে উত্সাহিত করে। যা আমাদেরকে দানব না হয়ে মানুষ হতে সহায়তা করে।

Read More…

Q47:What is the Purpose of Life as a Human Being?

Q178:Why make Someone Responsible for the task with a Deadline?

Q156:Why Easy Earning People are Growing Fast in Bangladesh?

How to Minimize Hate Crime in Society?

Your Answer